ফারিয়ার আবেগঘন চিঠি

বিনোদন

আর কদিন পরেই অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। গত বছরই তাদের আকদ হয়ে গেছে। পহেলা ফেব্রুয়ারিতে জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে শবনম ফারিয়া ও হারুনুর রশীদ অপুর বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হবে। দিনটির জন্য তোড়জোড়ে প্রস্তুতি নিচ্ছেন সময়ের আলোচিত এই অভিনেত্রী।

এদিকে, ২০১৭ সালের জুলাই মাসে বাবা মীর আবদুল্লাহকে হারিয়েছেন শবনম ফারিয়া। বাবার মৃত্যুতে তিনি ভীষণ ভেঙে পড়েন। যে শোক এখনও তাকে তাড়া করে বেড়ায়। বিয়ের দিনক্ষণ যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বাবাকে মনে পড়ছে ফারিয়ার। তাই তো বাবার স্মরণে ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

বাবাকে নিয়ে ফেসবুকে ফারিয়া লিখেছেন- ‘যে দিনটি দেখার জন্য তুমিই সবচেয়ে বেশি অপেক্ষা করেছ, সেই দিনটি এগিয়ে আসছে। কিন্তু অদ্ভুতভাবে তুমিই নেই। প্রতিটা ঘটনা ঘটে, আর আমি কল্পনা করার চেষ্টা করি- তুমি থাকলে কী কী হতো! তুমি আমার হাতে মেহেদি দেখলে কী বলতে কিংবা বিয়ের শাড়ি কেনার সময় তোমার অবজারভেশন কী থাকত, তুমি মেহমানদের কী খাওয়াতে চাইতে, তুমিও কি সবুজ পাঞ্জাবি পরতে? কিংবা সব সময়ের মতো তুমি চাইতে মান্না দের কিছু গান বাজুক অথবা সবার অনুরোধে তুমিও কি দুলাইন কবিতা শোনাতে? বাবা,

মা গল্প বলে- ছোটবেলা তুমি অফিসের কাজে বাসার বাইরে থাকলে আমি খুব বিরক্ত করতাম, খেতে চাইতাম না। তোমার আবৃত্তি শুনিয়ে খাওয়াতে হতো। আমার না ভীষণ তোমার কণ্ঠ শুনতে মন চায়। কী আজব দুনিয়ার নিয়ম। যে ঘটনায় যার সবচেয়ে বেশি খুশি হওয়ার কথা, তাকে ছাড়াই সব আনন্দ, সব আয়োজন। কী নিষ্ঠুর পৃথিবীর নিয়ম।’