আজ বৃহস্পতিবার রাত ১২:৩৮, ২১শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

রানির বাড়ির সামনে কি আরমান ‘জঘন্য’ কাজ করেন জানেন?

নিউজ ডেস্ক | জাগো বার্তা .কম
আপডেট : নভেম্বর ৯, ২০১৮ , ৫:৪৯ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : বিনোদন
পোস্টটি শেয়ার করুন

বিগ বসের ঘর থেকে তাঁদের সম্পর্কের সূত্রপাত হলেও, শেষ হয় তিক্ততা দিয়ে। এমনকী বিচ্ছেদের সময় আরমান কোহলির গালে থাপ্পড় কষিয়ে সেখান থেকে চলে যান তানিশা মুখোপাধ্যায়। সে প্রায় ৩ বছর আগের ঘটনা। কাজলের বোনের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর থেকে আরমান কোহলি কি করেন জানেন?

স্পটবয় ডট কম-এর খবর অনুযায়ী, তানিশা ছেড়ে চলে যাওয়ার পর থেকেই রাগে ফুঁসতে শুরু করেন আরমান কোহলি। ওই ঘটনার পর থেকেই তানিশার তুতো দিদি রানি মুখোপাধ্যায়ের বাড়ির সামনে মূত্রত্যাগ শুরু করেন আরমান। তানিশার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর থেকেই রানির বিকাশ পার্কের বাংলোর সামনে গিয়ে এই ‘কুকীর্তি’ করে আসেন আরমান।

আরমান কোহলির বাবার গাড়ি চালক সোনুকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, আরমান রাগের চোটে এখনও যা ইচ্ছা তাই করেন। তানিশা যেভাবে আরমানের গালে চড় কষিয়ে তাঁকে ছেড়ে চলে যান, তাতে খেপে যান বলিউডের এই অভিনেতা। এই ঘটনার পর থেকেই রানির বাড়ির সামনে দিয়ে যাওয়ার সময় এই ‘কুকীর্তি’ করেন বিগ বসের প্রাক্তন প্রতিযোগী। তবে ৩ বছর আগে বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ার পর এখনও কি রানির বাড়ির সামনে গিয়ে ক্ষোভ দেখান আরমান? এই প্রশ্নের উত্তরে সোনু বলেন, বিচ্ছেদ ৩ বছর আগে হয়ে গেলেও, আরমান কোহলি এখনও তা ভুলতে পারেননি। তিনি আরও বলেন, যখনই তানিশারকথা মনে করে রেগে যান আরমান, তখনই এই কীর্তি করেন তিনি।


সম্প্রতি নিরু রনধাওয়া নামে আরমানের ডিজাইনার গার্লফ্রেন্ডও তাঁকে ছেড়ে চলে যান। মত্ত অবস্থায় আরমান তাঁকে মারধর করেন এবং নাক ফাটিয়ে দেন বলে অভিযোগ করেন নিরু। গুরুতর আহত অবস্থায় নিরুকে মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু, নিরু যাতে আরমানের বিরুদ্ধে সমস্ত অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেন, তার জন্য অর্থের প্রলোভনও দেখানো হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু কোনও কিছুতেই দমে যাননি নিরু। আরমান তাঁকে বার বার বোঝানোর চেষ্টা করলেও, শেষ পর্যন্ত এফআইআর প্রত্যাহার করেননি তিনি।

নিরু রনধাওয়ার সঙ্গে আরমান কোহলির বিচ্ছেদের পরই উঠে আসে তানিশা-পর্ব। শুধু নিরু নন, সম্পর্কে থাকাকালীন কাজলের বোন তানিশাকেও যে আরমানের হাত মারধর খেতে হয়, তা এবার সংবাদমাধ্যমের সামনে প্রকাশ করেন অভিনেতার বাবার গাড়ির চালক সোনু। যদিও এ বিষয়ে আরমান কোহলি এখনও কোনও মন্তব্য করেননি। চুপ রয়েছেন তানিশা মুখোপাধ্যায়ও।