আজ মঙ্গলবার রাত ৯:৪৬, ২০শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

অভিমান করে জলে নেমে ছিল ‘সখিনা’

নিউজ ডেস্ক | জাগো বার্তা .কম
আপডেট : মে ১০, ২০১৮ , ৬:০৬ পূর্বাহ্ণ
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে
পোস্টটি শেয়ার করুন

মানুষের যেমন রাগ আছে ঠিক ব্যাতিক্রম নন হাতিও। অনান্য পশুর মাঝে সবচেয়ে বেশি অভিমান আছে হাতির। মৌলভীবাজারে ঘটলো ঠিক তেমন একটি ঘটনা। অভিমান করে পানিতেই পড়ে রইলো ব্যাক্তিগত মালিকাধীন হাতি।

প্রায় ৭ ঘণ্টা খরস্রোতা মনু নদীতে সাঁতার কাটার পর অভিমানি হাতি সখিনাকে উদ্ধার করেছে মৌলভীবাজার ফায়ার সার্ভিস। বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এর আগে বুধবার দুপর ১২টার দিকে অভিমান করে মৌলভীবাজারের সদর উপজেলার নতুন ব্রিজ এলাকায় মনু নদীতে নেমে যায় হাতিটি। প্রায় ৭ ঘণ্টা মনু নদীতে ভেসে থাকার পর সন্ধ্যা ৭টার দিকে তাকে উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস।

মৌলভীবাজার ফায়ার সার্ভিসের ফায়ার ম্যান রনি কান্ত সিংহ প্রতিবেদককে জানান, মনু নদীতে একটি হাতি ভাসছে শুনে ৭ সদ্যস্যের একটি দল হাতিটিকে উদ্ধার করেছে।

হাতির মাহুত আব্দুল্লাহ প্রতিবেদককে জানান, হাতিটির নাম সখিনা। সখিনা রাগ করে পানিতে নেমেছিল। হয়তো বেশি হাঁটার কারণে বা অন্য কোনো কারণে বিরক্ত হয়ে সে রেগে যায়। তাই ইচ্ছে করেই পানি থেকে উঠছিল না।

তিনি আরও জানান, সিলেট থেকে হাতিটিকে নিয়ে মৌলভীবাজারের জুড়ি যাচ্ছিলেন। বেলা ১১টার দিকে হাতিটিকে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার নতুন ব্রিজ এলাকায় কলা গাছ খেতে দেন। হাতিটি কলা গাছ খাওয়া অবস্থায় দুপুর ১২টার দিকে হঠাৎ মনু নদীতে নেমে যায়। শত চেষ্টা করেও পাড়ে নিয়ে আসা যাচ্ছিলনা। কালবৈশাখী ঝড়, বজ্রপাতের মধ্যেও সে পানি থেকে উঠতে নারাজ ছিল। মাঝে মধ্যে পাড়ের খুব কাছে আসলেও আবার নদীতে সাঁতার কাটে। কখনও তীর ঘেঁষে হাঁটছিল। এভাবেই নতুন ব্রিজ এলাকা থেকে প্রায় ১ কি.মি. দূরে মিরপুরে চলে যায়। সেখান থেকে মৌলভীবাজার ফায়ার সার্ভিস অনেক কসরত করে অভিমানি সখিনাকে পাড়ে আনতে সক্ষম হয়।