আজ সোমবার বিকাল ৩:৩০, ১৯শে নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪০ হিজরী

‘শেরপুরে নির্বাচন কর্মকর্তার ঘুষ নেয়ার সত্যতা মিলেছে’

নিউজ ডেস্ক | জাগো বার্তা .কম
আপডেট : জুলাই ৩১, ২০১৭ , ৫:৪৩ অপরাহ্ণ
ক্যাটাগরি : দেশজুড়ে,রংপুর
পোস্টটি শেয়ার করুন

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ কে এম জালাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে জাতীয় পরিচয়পত্রে ভুল সংশোধনের  নামে ঘুষ নেয়ার অভিযোগের তদন্ত হয়েছে। তদন্তে প্রাথমিকভাবে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কমকর্তা। গত ৩ জুলাই উপজেলা সদরের বাসিন্দা মো. নাজমুল হুদা ও আছিয়া বেগম প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ করেন, উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ কে এম জালাল উদ্দিন জাতীয় পরিচয়পত্রে ভুল সংশোধনের জন্য ঘুষ নিয়েছেন। ওই অভিযোগের বিষয়ে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয় উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে ময়মনসিংহ অঞ্চলিক কর্মকর্তা মো. ইসরাইল হোসেনকে। আজ  সোমবার তদন্তের সময় উপস্থিত ছিলেন শেরপুর সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক, ময়মনসিংহ অঞ্চলিক কর্মকর্তার কার্যালয়ের সহকারী পার্থ প্রতীম দে ও ওই দুই লিখিত অভিযোগকারীসহ আরও আটজন অভিযোগকারী।

তদন্ত কর্মকর্তা মো. ইসরাইল হোসেন বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর লিখিত অভিযোগের অনুলিপি আমার কাছেও  দেওয়া হয়েছে। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত ও লিখিত অভিযোগকারী দুইজন এবং উপস্থিত আটজনের বক্তব্য লিখিত আকারে গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্তের বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে প্রতিবেদন পাঠানো হবে। পরে কমিশন আইনানুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। তবে তদন্তে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এ কে এম জালাল উদ্দিন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি কারো কাছ থেকে কোনো টাকা নিইনি।’